Home >> দূনতি >> আক্কেলপুরে ভাড়া দোকান নিয়ে ব্যবসা কার্যক্রমে বাধা ভুক্তভুগির দায়েরকৃত মামলায় আদালতের আদেশ ব্যস্তবায়নে পুলিশের হস্তক্ষেপে সমাধান।

আক্কেলপুরে ভাড়া দোকান নিয়ে ব্যবসা কার্যক্রমে বাধা ভুক্তভুগির দায়েরকৃত মামলায় আদালতের আদেশ ব্যস্তবায়নে পুলিশের হস্তক্ষেপে সমাধান।

স্টাফ রির্পোটারঃ নিরেন দাস
জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে দোকান ভাড়া নিয়ে ব্যবস্যা করে আসাকালীন সময়ে উক্ত দোকান মালিকের পক্ষ্য থেকে হঠাৎই ব্যবসা কার্যক্রমে বাধা প্রয়োগে ভ’ক্তভুগি ভারাটিয়া আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালতের আদেশ ব্যাস্তবায়নে থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে সমাধান।
মামলার বাদির অভিযোগ পত্রের ভিত্তিতে জানা গেছে, আক্কেলপুর বাজারের বিশিষ্ঠ্য ব্যবসায়ী মোঃ শফিকুল হুদা স্বপন চৌধুরীর পুত্র মোঃ সাইফুর রহিম চৌধুরী জেরিন আক্কেলপুর উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন লিখন কমার্শিয়াল কমপ্লেক্স এর প্রোপাইটর মোঃ সবির উদ্দীন মন্ডলের মালিকানাধীন মার্কেটের পশ্চিম দিকের একটি দোকানঘর ছয় লক্ষ টাকা জামানত প্রদান পূর্বক পাঁচ হাজার টাকা মাসিক ভাড়ায় গত ১৩ জুলাই ২০১৯ ইং তারিখ হইতে ১ আগষ্ট ২০২২ ইং সাল পর্যন্ত ৩০০ (তিনশত) টাকার নন জুডিশিয়াল ষ্টাম্পে চুক্তিপত্র মূলে ভাড়া গ্রহণ করিয়া রড়, সিমেন্টের দোকান দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন।
সম্প্রতি গত ৩ নভেম্বর ২০১৯ ইং তারিখে হঠাৎই বেশি ভাড়া ও জামানত পাওয়ার কু-উদ্দেশ্যে ভাড়াটিয়া সাইফুর রহিম চৌধুরী জেরিনকে উক্ত দোকান হতে উচ্ছেদ করার হুমকি ও অন্যায় অত্যাচার করে ব্যবসা পরিচালনায় বাধা সৃষ্টি করলে সাইফুর রহিম চৌধুরী জেরিন বাজারের সুনামধন্য ব্যবসায়ী হওয়ায় আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বিগত ৯ নভেম্বর ২০১৯ ইং তারিখে আক্কেলপুর থানায় উক্ত বিষয়ে একটি অভিযোগ দাখিল করেন এবং পরবর্তিতে বিষয়টি দ্রুত মিমাংশার প্রয়াশে ১৮ নভেম্বর ২০১৯ ইং তারিখে জয়পুরহাট বিজ্ঞ জজ ২য় সাহেবের আদালতে লিখন কমার্শিয়াল কমপ্লেক্স এর প্রোপাইটর মোঃ সবির উদ্দীন মন্ডলকে বিবাদি করে ৫৭/২০১৯ অন্য ঘোষনার মোকদ্দমা আনায়ন করলে বিজ্ঞ হুজুর আদালত অন্তবর্তিকালীন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দ্বারা বিবাদীকে অত্র বে-আইনি কার্যক্রম হতে বারিত করা হলো মর্মে আদেশ প্রদান করেন।
এমতাবস্থায় অত্র নিষেধাজ্ঞা সঠিকভাবে জারি হলেও বিবাদি অবগত থাকা সত্বেও বে-আইনি ভাবে সাইফুর রহিম চৌধুরী জেরিনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বাধা সৃষ্টি করতে থাকে।
ইতি মধ্যেই ২২ নভেম্বর ২০১৯ ইং তারিখে আনুমানিক সকাল ৯ ঘটিকায় ইউনিক সিমেন্ট কোং এর সিমেন্ট বহনকৃত ৬২৪ বস্তা ফ্রেস সিমেন্ট বোঝায়কৃত একটি  ট্রাক উক্ত দোকান ঘরের সামনে দাড়িয়ে সিমেন্ট বস্তাগুলো আনলোড করতে লাগলে বিবাদী ও তার ছেলে মোঃ সুমন হোসেন তার কয়েকজন সাংঙ্গ-পাঙ্গসহ লাঠিসোঠা নিয়ে উক্ত দোকান ঘরের সামনে এসে মালভর্তি ট্রাকটি ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার মোঃ বেলাল হোসেন প্রতিবাদ করায় সকল বিবাদীরা ম্যানেজার ও কর্মচারীদেরকে লাঠি সোঠা দিয়ে আঘাত করে তাড়িয়ে দেয় এবং পাশাপাশি বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিয়ে বলে এই ঘরে মালামাল ঢ়ুকানোর চেষ্টা করলে উক্ত সিমেন্টবাহি ট্রাকটি পুড়িয়ে দিবে এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটিতে কর্মরত কর্মচারীদেরকে মেরে ফেলবে।
তাতেও ক্ষান্ত না হয়ে ২৩ নভেম্বর বিবাদীরা আবারও উক্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমে বাধা দিতে আসলে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে আক্কেলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবু ওবায়েদ পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন এবং সে সময়ে বিবাদীর সঙ্গীয়রা দূর থেকে পুলিশভ্যান আশা দেখে কৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও তাদের মধ্য থেকে ঘটনাস্থলে বিশৃংখলাকারি মোঃ রাসেল নামের একজনকে ধরে থানায় নিলে মুসলিকা প্রদানের মাধ্যমে পুলিশি হস্তক্ষেপে আদালতের আদেশ বাস্তবায়ন সহ বিষয়টি সমাধান করেন।
দেশের কন্ঠ/ সাকিল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*