শিরোনাম
Home >> দূনতি >> লবনের দাম বাড়বে বা বাড়ছে প্রচুর, এমন গুজবে কান দিবেন না– বাউফল থানার তদন্ত ওসি মুরাদ.

লবনের দাম বাড়বে বা বাড়ছে প্রচুর, এমন গুজবে কান দিবেন না– বাউফল থানার তদন্ত ওসি মুরাদ.

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ-এম.জাফরান হারুন
লবণের দাম বাড়বে বা বেড়ে যাচ্ছে এমন গুজবে কান দিবেন না। লবনের দাম আগেও যা ছিল, এখনও তা আছে , ভবিষ্যতেও তাইই থাকবে বলেছেন বাউফল থানার তদন্ত ওসি মাকসুদুর রহমান মুরাদ।

তিনি আরও বলেন, যারা গুজব ছড়াচ্ছে বা কোন পাইকারি দোকান কিংবা কোন খুচরা দোকানদার যদি লবন বেশি দামে বিক্রি করে তাহলে অবশ্যই বাউফল থানার ওসিকে জানাবেন। আমরা তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিব।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে বাউফলের কালাইযা বাজারে পাইকারি, খুচরা বিক্রেতা ও লবন কিনতে আসা ক্রেতা সকল সর্বসাধারণের উদ্দেশ্যে তিনি এসব কথা বলেন ।

উপজেলায় লবনের দাম ১০০ থেকে ১২০ টাকা হবে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ায় ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েন খুচরা ও পাইকারি দোকানগুলোতে । বাড়তি চাপে নিমিষেই ফুরিয়ে যায় বিভিন্ন দোকানের লবণের মজুদ। আবার অনেক ব্যবসায়ী বেশি দামে বিক্রির করার জন্য লবণ মজুদ করেও রাখছেন । প্রশাসন বলছে, লবণের দাম বৃদ্ধির খবর পুরোটাই গুজব। কেউ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই গুজব ছড়াতে পারে।

উপজেলার কালাইযা বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, লবণের চাহিদা মাফিক সরবরাহ রয়েছে। শিগগিরই দাম বাড়ার শঙ্কা নেই। তবে ব্যবসায়ীরা এমনটি দাবি করলেও মঙ্গলবার সকাল থেকে অনেক দোকানে বাড়তি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া যায়। মঙ্গলবার বিক্রি না করে বুধবার বেশি দামে বিক্রি করবেন- এই আশায় দোকানমালিকরাও ইতোমধ্যে তৈরি করে ফেলেছেন কৃত্রিম সংকট। সকাল থেকে উপজেলা বিভিন্ন হাট-বাজারে থেকে জানাযায়, লবণ কেনার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন ক্রেতারা। বেশিরভাগ মুদি দোকান মালিকরা মজুদ ফুরিয়ে গেছে বলেন। সব ক্রেতারই দাবি, লবণের দাম বাড়তে যাচ্ছে এমন খবর শুনেছেন। তাই লবণ কিনতে এসেছেন ক্রেতা। তবে কোথায় এমন সংবাদ শুনেছেন এ কথা কেউ বলতে পারেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*