Home >> লীড নিউজ >> আমতলীতে আমনে কৃষকদের স্বপ্ন শেষ

আমতলীতে আমনে কৃষকদের স্বপ্ন শেষ

বরগুনা প্রতিনিধি:মোঃআসাদুজ্জামান
বরগুনার আমতলীর কৃষকরা অনেক আশা নিয়ে তাদের জমিতে আমন ধানের চাষ করেছিলেন। সপ্তাহ খানের আগেও কৃষকরা তাদের সোনালী ফসল ঘরে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। রোপনকৃত ধান পাকতেও শুরু করেছিল। সেই সময় ঘূর্ণিঝড় “বুলবুল” আঘাত হেনে কৃষকের সে স্বপ্ন শেষ করে দিল। কৃষক ও স্থাণীয়দের সাথে কথা বলে জানাগেছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তান্ডবে আমতলী উপজেলায় রোপা আমন ক্ষেত ও রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। শুক্রবার সকালে সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখাগেছে, আমতলী পৌরসভাসহ ৭টি ইউনিয়নের রোপনকৃত আমন ধান ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে প্রচন্ড বাতাস ও বৃষ্টিতে হেলে পড়েছে। এখনো অনেক জায়গায় পানির নিচে নিমজ্জিত রয়েছে রোপা আমন ধান। হেলে পড়া পানির নিচে নিমজ্জিত ধান দ্রুত না কাঁটা গেলে সম্পূর্ন নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
চাওড়া ইউনিয়নের বৈঠাকাটা গ্রামের কৃষক মোঃ নান্নু হাওলাদার জানান, আমি ৫ একর জমিতে আমন ধানের চাষ করেছি। ধানের ফলনও ভাল হয়েছিল। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে আমার সব স্বপ্ন শেষ করে দিয়েছে। আমার জমির অধিকাংশ রোপা আমন ধান বাতাসে হেলে ক্ষেতে জমা বৃষ্টির পানিতে নিমজ্জিত রয়েছে।
এছাড়া ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। রোপনকৃত ক্ষেতে পানি জমে ও বাতাসে চারাগাছ মাটিতে হেলে পড়ে লাল শাক, পালং শাক, ফুল কপি, পাতা কপি, বেগুন, করোলা, ধনিয়া, মরিচ নষ্ট হয়ে গেছে। আখ ও পান চাষীদেরও অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে।
হলদিয়া ইউনিয়নের টেপুড়া গ্রামের কৃষক আবুসালেহ বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে আমার রোপনকৃত রবিশস্যের ক্ষেতে পানি জমে শস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
উপজেলা কৃষি অফিসার সি.এম. রেজাউল করিম বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তান্ডবে উপজেলায় ৭০৩৮ হেক্টর জমির রোপা আমন ধান ও ২২৭.৯ হেক্টর জমির রবিশস্যের ক্ষতি হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*