Home >> দূনতি >> কালিয়াকৈরে মাদক সহ আটক-৩ ঘুষের বিনিময়ে ১ জন মুক্ত

কালিয়াকৈরে মাদক সহ আটক-৩ ঘুষের বিনিময়ে ১ জন মুক্ত

 

কালিয়াকৈর প্রতিনিধিঃ- মোঃ দেলোয়ার হোসেন

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার আন্দার মানিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে কালিয়াকৈর থানা পুলিশের উপ-পরিদশকের(এস আই) আনোয়ার হোসেন মাদকসহ তিন জনকে আটক করার পর প্রধান আসামীকে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও থানা থেকে ছেড়ে দেওয়ার কথা বলে দুজনের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে পরে মাদক মামলায় চালান দেওয়া হয়। ওই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

পুলিশ, এলাকাবাসী ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা যায়, উপজেলার আন্দার মানিক এলাকার মৃত-শামছুল হকের ছেলে শাজাহানের বাড়ীতে গত বুধবার রাত প্রায় ৯টার দিকে থানার এস আই আনোয়ার হোসেন কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে সাদা পোশকে ওই বাড়ীতে যান।

সেখানে শাজাহানের বাড়ীর একটি কক্ষ থেকে আনোয়ার হোসেন, নাসির উদ্দিন ও বাড়ীর মালিক শাজাহানকে মাদকসহ হাতে নাতে আটক করে । পরে রাতে শাজাহানের স্ত্রী ও আনোয়ার হোসেনের ভাই সফিপুর আনসার একাডেমী এলাকা থেকে আসামী ছাড়িয়ে নেয়ার জন্য এস আই আনোয়ারের কাছে ২৬হাজার টাকা দেন।

শাজাহানের স্ত্রী ও আনোয়ারের ভাইয়ের নিকট থেকে টাকা নিয়ে তিন আসামীকে সেখান থেকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় আরও টাকা লাগবে বলে। পরে ভোর রাতে শাজাহানকে মামলার স্বাক্ষী করে ছেড়ে দেওয়া হলেও অপর দুই আসামী আনোয়ার হোসেন ও নাছিরকে ৩০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার দেখিয়ে মামলায় আদালতে চালান দেওয়া হয়।

পরের দিন সকালে সোর্স রানা ওরফে পারভেজ আসামী আনোয়ারের মায়ের কাছ থেকে আরও ২৮ হাজার টাকা নেন ৫৪ধারায় চালান দেওয়ার কথা বলে। বর্তমানে আনোয়ার ও নাসির উদ্দিন গাজীপুর জেল হাজতে রয়েছে। অপরদিকে মামলার প্রধান আসামী মাদক ব্যবসায়ী শাজাহান পুলিশের হাত থেকে ছাড়া পেয়ে এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

আসামী আনোয়ারের মা অনোয়ারা বেগম বলেন, আমার ছেলে আনোয়ার ও নাছিরকে শাজাহানকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। পরে আমার ছোট ছেলে জয়নালের মাধ্যমে পুলিশ রাতে ২৬ হাজার টাকা ও সকালে সোর্সের মাধ্যমে ২৮ হাজার টাকা নেয় তাদের ছেড়ে দেওয়ার কথা বলে। কিন্তু ভোর রাতে প্রধান আসামী শাজাহানকে ছাড়লেও ওই দুই জনকে আদালতে প্রেরন করে। আমার ছেলে মাদক খেলেও নাছির নিরীহ। তাহলে পুলিশ টাকা নিয়ে কেন মামলা দিলো। আবার শাজাহানকে কেন ছেড়ে দিলো।

আনোয়ারের ভাই জয়নাল জানায়, আমার ভাইসহ তিনজনকে ৫শত পিচ ইয়াবা মাদকসহ আটক করলেও প্রধান আসামীকে ছেড়ে দেয় পুলিশ এবং মাত্র ৩০ পিচ ইয়াবা মাদক উদ্ধার দেখিয়েছে।

স্থানীয়া এলাকাবাসী জানায়, শাহজাহান একজন মাদক ব্যবসায়ী তার বাড়ী সব সময় মাদক সেবন কারীদের আড্ডা হয় তার পরও পুলিশ তাকে ছেড়ে দিয়েছে।
এস আই আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি নিয়ম অনুযায়ী আসামী ধরেছি, আবার চালান করে দিয়েছি। শাজাহান বাড়ীর মালিক তাই তাকে মামলায় স্বাক্ষী করে ছেড়ে দেওয়া হয়। টাকার বিষয়ে তিনি বলেন কে বলেছে টাকা নিয়েছি। বাদ দেন তো ভাই ওই সব মিথ্যা।
কালিয়াকৈর থানার ওসি (তদন্ত) সানোয়ার জাহান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আলমগীর হোসেন মজুমদার বলেন, বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখবো।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*