শিরোনাম
Home >> দুর্ঘটনা >> জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার শালাইপুর এলাকায় নিহত ৩

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার শালাইপুর এলাকায় নিহত ৩

স্টাফ রিপোর্টারঃ- নিরেন দাস।
জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার শালাইপুর এলাকার একটি বাড়ির সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে গিয়ে বাড়িওয়ালা সহ ২ শ্রমিক নিহত হয়েছে। এ দুর্ঘটনা আরও ১ জন আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত ও আহতরা হলেন- পাঁচবিবি উপজেলার শালাইপুর গ্রামের বাড়িওয়ালা মৃতঃ- আমজাদ আলীর ছেলে মোহাম্মদ আলী (২৪), বাঁশখুর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে নাইম হোসেন (২২) ও আহত শালাইপুর গ্রামের নূর ইসলাম এর ছেলে জাকারিয়া হোসেন (২৭)। প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে শালাইপুর গ্রামের বাসিন্দা মোহাম্মদ আলীর বাড়ির সেপটিক ট্যাংকটি পরিষ্কার করতে আসেন পার্শ্ববর্তী বাঁশখুর গ্রামের ২ জন শ্রমিক। প্রথমে শ্রমিক নাইম সেপটিক ট্যাংকটিতে নামেন। এরপর তার কোনো সাড়া শব্দ না পাওয়ায় বাড়িওয়ালা মোহাম্মদ আলী ও সেখানে নামেন। পরে তাদের ২ জনের কারও কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে প্রতিবেশি জাকারিয়া তাদের খোঁজ করতে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করলে। এ সময় জাকারিয়ার নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসলে তিনি অজোড়ে চিৎকার শুরু করেন। তার চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে এসে জাকারিয়া কে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে নির্মাণাধীন বাথরুমের দেওয়ালটি কেঁটে শ্রমিক নাইম ও বাড়িওয়ালা মোহাম্মদ আলীর মরদেহ উদ্ধার করে প্রতিবেশীরা। এ বিষয়ে জয়পুরহাট ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ-সহকারী পরিচালক খন্দকার সানাউল হক সাংবাদিকদের জানান, খবর পেয়ে পাঁচবিবি ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহত জাকারিয়া কে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে চিকিৎসারা ভর্তি করান।
পরে বিষয় টি নিয়ে স্থানীয় কুসুম্বা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মুক্তার হোসেন মণ্ডলের সাথে কথা বললে তিনি জানান,এমন দুর্ঘটনার খবর প্রতিনিয়তই বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় দেখতে পাই বলে তিনি আরও জানান এমন দুর্ঘটনা গুলো শুধুমাত্র অসেচতনতার অভাবেই সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে নেমে জীবন দিতে হচ্ছে অসহায় শ্রমিকদের। তাই এমন সচেতনতা বাড়াতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ বাড়ানো দরকার বলে তিনি জানান।
পাঁচবিবি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিবুল আলম জানান, এ বিষয়ে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। পরে সিদ্ধান্ত ক্রমে নিহতদের পরিবার কে আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া হবে।
পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনসুর রহমান জানান, এ বিষয়ে কোন অভিযোগ না থাকায় নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে থানায় পৃথক দুটি (ই’উ’ডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*