শিরোনাম
Home >> লীড নিউজ >> পটুয়াখালী বাউফলে ইন্টারনেট লাইন নিয়ে দ্বন্দ্বে সাংবাদিককে মারধর

পটুয়াখালী বাউফলে ইন্টারনেট লাইন নিয়ে দ্বন্দ্বে সাংবাদিককে মারধর

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃএম.জাফরান হারুন

পটুয়াখালীর বাউফলে ইন্টারনেট ব্যবসা সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে ব্রাদার্স ডটকম নামক ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দানকারী
প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ও দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার বাউফল প্রতিনিধি মো: মাসুম সিদ্দিকীকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

গত মঙ্গলবার রাত পৌঁনে ১০টার দিকে উপজেলার কালাইয়া বাজারের বড় পুকুর এলাকায় এঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।

জানা গেছে, কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যানের হল রোডস্থ বাসার ইন্টারনেট লাইনে দীর্ঘদিন যাবৎ সমস্যা থাকায় ওই বাসার দায়িত্বে থাকা যুবলীগ কর্মী শফিউল আলম (শফি) সমস্যার কথা লাইনম্যান নিখিল দাসকে অবহিত করেন। কার্যকর পদক্ষেপ না নেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে
ঘটনার দিন সন্ধ্যায় নিখিলকে মারধর করেন।
নিখিলকে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাদার্স ডটকমের পরিচালক মাসুমের সাথে শফির কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় শফি তাঁকে হাতে থাকা লাইট দিয়ে আঘাত করে। এসময় তাঁর
সাথে থাকা আরেক সংবাদকর্মী আঘাত প্রাপ্ত হয়।

এব্যাপারে মাসুম সিদ্দিকী বাউফলের কর্মরত সাংবাদিকদের বলেন, যুবলীগ ক্যাডার শফি তার উপর হামলা চালায়। তবে কি কারনে তাঁর
উপর হামলা চালানো হয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি তিনি।

এ প্রসঙ্গে কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান ফয়সাল আহম্মেদ বলেন, আমি আমার বাবার চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে অবস্থান করছি। ওয়াই-ফাই কে কেন্দ্র করে যে ঘটনা হয়েছে তা শুনেছি।

বাউফল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। ব্যবসা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে
ঘটনা ঘটেছে। এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার বাউফল উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক চীফ হুইপ আ.স.ম ফিরোজের কাছে সাংবাদিক মাসুমের উপর হামলার ঘটনার সঠিক বিচার দাবী করেন বাউফল প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ও দৈনিক জনকন্ঠের বাউফল
সংবাদদাতা কামরুজ্জামান বাচ্চু। এবিষয়ে সাংসদ বাউফল উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানা কর্মকর্তাকে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*